আজ আহমদ ছফার ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী

চেরাগদানী : আজ বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী কীর্তিমান, একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রখ্যাত লেখক, সাহিত্যকর্মী ও সংগঠক, আহমদ ছফার ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি ২০০১ সালের ২৮ জুলাই ইন্তেকাল করেন। আহমদ ছফার জন্ম ১৯৪৩ সালের ৩০ জুন চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া গ্রামের এক মধ্যবিত্ত পরিবারে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর করেছেন রাষ্ট্রবিজ্ঞানে। লেখালেখি শুরু করেন ষাটের দশক থেকে। তার লেখায় মুক্তিকামী মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষা এবং সমাজের নানা অসঙ্গতি ও বৈষম্য ফুটে উঠেছে। সাহিত্যের প্রায় প্রতিটি শাখায় প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন আহমদ ছফা। গল্প, গান, উপন্যাস, কবিতা, প্রবন্ধ, অনুবাদ, ইতিহাস, ভ্রমণকাহিনী মিলিয়ে রচনা করেছেন ৩০টির বেশি বই। ১৯৬৭ সালে তিনি লেখেন তার প্রথম উপন্যাস ‘সূর্য তুমি সাথি’। এ ছাড়া তার অন্যান্য উপন্যাসগুলোর মধ্যে আরেকটি বিখ্যাত উপন্যাস হলো ‘ওঙ্কার’।

বাংলাদেশের চিন্তাজগতেও আহমদ ছফা ছিলেন অনন্য। ‘বুদ্ধিবৃত্তির নতুন বিন্যাস’ ও ‘বাঙালি মুসলমানের মন’ নামে দুটি প্রবন্ধের বইয়ে ছফার চিন্তার সেই অনন্যতার প্রতিফলন ঘটেছে। লিখেছেন আরও অনেক প্রবন্ধ। এ ছাড়া তার উল্লেখযোগ্য কবিতার বইয়ের মধ্যে রয়েছে ‘জল্লাদ সময়’, ‘একটি প্রবীণ বটের কাছে প্রার্থনা’, ‘লেনিন ঘুমোবে এবার’ ইত্যাদি। ‘নিহত নক্ষত্র’ তার একমাত্র ছোটগল্পের বই। অনুবাদ করেছেন জার্মান কবি গ্যেটের বিখ্যাত কাব্য ‘ফাউস্ট’। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বিভিন্ন পত্রিকায় কলাম লিখেছেন ছফা। স্বাধীনতার পর আহমদ শরীফের নেতৃত্বে গঠন করেছেন ‘বাংলাদেশ লেখক শিবির’। ২০০২ সালে তাকে সাহিত্যে (মরণোত্তর) একুশে পদক দেওয়া হয়।