হোয়াটসঅ্যাপে স্প্যাম বা অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ বন্ধ করবেন যেভাবে

ডেস্ক: ইনস্ট্যান্ট মেসেজিংয়ের জন্য জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম— হোয়াটসঅ্যাপ। কিন্তু এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অন্যদের স্প্যাম বা অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ পাঠানো হয়। ব্যক্তি বা গ্রুপ যে কোনোভাবে অযাচিত ও বিরক্তিকর মেসেজ অনুপ্রবেশ করতে পারে।

‘কন্টাক্ট ব্লকিং’ এর মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধানের পরামর্শ দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের মূল কোম্পানি মেটা। প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট গ্যাজেট নাও এর প্রতিবেদনে এই ব্লকিং ফিচারটি সম্পর্কে জানা যায়। কন্টাক্ট ব্লকিংয়ের মাধ্যমে এই সব স্প্যাম বা অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ সরাসরি বন্ধ করা যাবে।

পরিচিত বা অপরিচিত যেকোনো নম্বরের জন্য হোয়াটসঅ্যাপের এই ফিচার কাজ করে। ব্যবহারকারীরা ‘রিপোর্ট ও ব্লক’ ফিচারের মাধ্যমে সঙ্গে সঙ্গে কোম্পানিকে এই অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ সম্পর্কে অবহিত করতে পারবে। ফলে কোম্পানি এই সমস্যা সমাধানের জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে।

কীভাবে চিনবেন স্প্যাম মেসেজ
১. বানান বা ব্যাকরণগত ভুল
২. কোন লিংক দিয়ে তাতে ক্লিক করতে অনুরোধ করা।
৩. ব্যক্তিগত তথ্য যেমন–ক্রেডিট কার্ড বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর, জন্মতারিখ ও পাসওয়ার্ড জানতে চাওয়া।
৪. মেসেজ ফরওয়ার্ডের জন্য অনুরোধ করা।
৫. হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের জন্য টাকা দাবি করা।

যেভাবে স্প্যাম বা অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ রিপোর্ট করবেন
১. আপনার ডিভাইসে হোয়াটসঅ্যাপ চালু করুন।
২. যে স্প্যাম বা অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ রিপোর্ট করতে চান সেই চ্যাটটি খুঁজে বের করুন।
৩. মেসেজটি চাপ দিয়ে ধরে রাখুন। এর ফলে মেসেজটি হাইলাইট হবে এবং একটি টুলবার চালু হবে।
৪. টুলবারটিতে ‘রিপোর্ট’ (পতাকার মত দেখতে) অপশনটি আসবে। সেটিতে চাপ দিন।
৫. হোয়াটসঅ্যাপ আপনার কাছে রিপোর্টের কারণ জানতে চাইবে। সেখানের অপশন থেকে উপযুক্ত কারণটি নির্বাচন করবেন। প্রয়োজন হলে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিতভাবে লেখা বা মন্তব্য করা যাবে।
৬. প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়ার পর আপনার ডিভাইস অনুসারে ‘নেক্সট’ বা ‘সাবমিট’ বাটনটি চাপুন।